ঢাকাMonday , 1 November 2021
  1. Engineering
  2. অপরাধ
  3. অর্থনীতি
  4. আইন আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আবহাওয়া ও দূর্যোগ
  7. ইসলাম
  8. উন্নয়ন
  9. কবিতা
  10. কুরআন/সূরা
  11. কৃষি
  12. কোভিড-১৯
  13. খেলাধুলা
  14. গনমাধ্যম
  15. জব
বিজ্ঞাপনঃ আপনি স্ববলম্বি হতে চান? ১০০% নিশ্চয়তায় দৈনিক আয় করতে telegram এ যোগাযোগ করুন, +85295063265 @krakenvip01' বা, @kraken_Asst     
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বগুড়া সোনাতলার জাহাঙ্গীর আলম নান্নুকে আ.লীগ থেকে বহিস্কার

bd-tjprotidin
November 1, 2021 5:03 am
Link Copied!

 

নিউজ ডেস্ক :বগুড়া: রবিবার সন্ধ্যায় (৩১ অক্টোবর) বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আল রাজি জুয়েল প্রেরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য জাহাঙ্গীর আলম নান্নু আকন্দ (সোনাতলা) কে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থীর বিরুদ্ধে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে সোনাতলা পৌরসভা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করায় বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য পদ হতে অব্যাহতি প্রদান করা হয়েছে। উক্ত বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবর রহমান মজনু ও সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু এর নির্দেশক্রমে জাহাঙ্গীর আলম নান্নু আকন্দ কে সদস্য পদ থেকে অব্যাহতি প্রদান করা হলো।

উল্লেখ্য থাকে যে, প্রার্থী ঘোষণার পর থেকে বিভিন্ন ষড়যন্ত্র ও আ.লীগ বিরোধী কার্যকলাপে লিপ্ত থেকে “সোনাতলা পৌর নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েও দলীয় পদে বহাল জাহাঙ্গীর। বিষয়টি মোটেও সমিচিন নয়। দলীয় আ.লীগ ও সহয়োগি সংগঠন, বিভিন্ন পত্রিকা গণমাধ্যমসহ  সামনে আনা হয়- এরপরেই নড়েচড়ে বসে জেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ। শেখ হাসিনার কঠোর নির্দেশনা ও সংবাদ প্রকাশের পর অবশেষে জাহাঙ্গীর আলম নান্নু আকন্দ এর বিরুদ্ধে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দিতে বাধ্য হয় জেলা আওয়ামী লীগ। আ.লীগের নৌকা বিরোধী হয়ে শেখ হাসিনা সরকারের বিপক্ষে কুপথে নেত্রীত্ব দিয়ে অনুন্নয়ন ও জনগণের জিবন যাত্রায় বিঘ্ন সৃষ্টি করবে এমন দূঃসাহসী নেতৃত্ব আ.লীগের প্রয়োজন আছে কি?

আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্রের ধারা ৪৭ এর ‘ঠ’ অনুচ্ছেদে সুস্পষ্টভাবে লেখা আছে, ‘জাতীয় ও স্থানীয় সরকার নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর বাইরে গিয়ে প্রার্থী হলে দল থেকে সরাসরি বহিষ্কার হবেন এবং যারা দলীয় প্রার্থীর বিরোধীতা করবেন তারাও তদন্ত সাপেক্ষে দল ও সহযোগী সংগঠন থেকে বহিষ্কার হবেন।’ অথচ ২০১৬ সালের সোনাতলা পৌর নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর বিরোধিতা করে বিদ্রোহী প্রার্থী হয়ে জাহাঙ্গীর আলম আকন্দ সোনাতলা পৌর মেয়র নির্বাচিত হলেও এরপর তিনি ২০২০ সালে বগুড়া জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য পদ পান। এছাড়াও জেলা জাতীয় শ্রমিকলীগের সহসভাপতি পদেও অধিষ্ঠ হন। আওয়ামীলীগ সভানেত্রীর কঠোর নির্দেশনা ও পত্রপত্রিকা  ‘ এ সংবাদ প্রকাশ না হলে এবারও হয়ত জাহাঙ্গীর আলম আকন্দ দলীয় পদে বহাল থাকতেন। আর বারংবার আ.লীগ বিরুদ্ধাচারণ করে আ.লীগের ভাবমূর্তি বিনষ্ট করে রাজনৈতিক বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হতো।

 

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।